Monday, April 27, 2020

করোনার কালে- ০২

জিরের গুঁড়ো শেষ হয়েছে বলে আজকে চিকেনের ঝোল হয়েছে জিরের গুঁড়ো ছাড়াই। গোটা জিরে রয়েছে, কাল গুঁড়ো করে নেব। বলার বিষয় হচ্ছে, জিরে ছাড়াও চিকেনটা খারাপ হয়নি। পাতলা ঝোল। দিব্য। সুমেরু করেছে।

ফ্রোজেন চিকেন এবং লাস্ট প্যাকেট।

টিভিতে অত লোকের বাজার যাওয়ার ছবি দেখে ভাবছি, কাল পরশু আমিও যাব একবার। আর কিছু না, দুধ ছাড়া চা খেতেই যা কিছু অসুবিধে। পাড়ার দুধের দোকান বন্ধ। বিগ বাস্কেট যে আবার কবে চাইলু হবে আর তাতে সব আবার কবে আ্য্যভেলেবল হবে, খোদা মালুম।

সিনেমা। কাল দুপুর থেকে প্রথমে চলল, গার্লফ্রেন্ড, তারপরে হইচইতে ব্যোমকেশের অগ্নিশলাকা আর তারপরে পিয়া রে। তিনদিন ধরে ব্রেক নিয়ে নিয়ে চলছে আলিনগরের গোলকধাঁধা। আজকে চলল পাঙ্গা আর সোয়েটার। মন্টু পাইলট ওয়েটিং এ আছে। আর ফাঁকে ফাঁকে এবিপি বাংলা।

একটু আগেই নন্দিতাকে ফোনে জিজ্ঞেস করছিলাম, এই লকডাউন শেষ হওয়া অবধি যদি বেঁচেও যাই, তবে মাথা ঠিক থাকবে তো আমার?

নন্দিতা খুবই আশাবাদী। বলল, সব ঠিক থাকবে, সব ঠিক হবে।

আপাতত এই।





২৭.০৩.২০২০

No comments:

Post a Comment