Saturday, June 15, 2013

খাঁচার ভিতর অচিন পাখী কমনে আসে যায়

মাঝে মাঝে নিজের শরীর ছেড়ে বেরিয়ে পড়ি আমি। ইচ্ছে বা অনিচ্ছে কিছুই কাজ করে না। ব্যস বেরিয়ে পড়ি। খুব বেশি দূরে যাই না। খানিকটা দূরে দাঁড়িয়ে অন্য আমাকে দেখি। খুব অবাক লাগে। নিষ্পলক তাকিয়ে থাকি নিজেরই দিকে।

খানিক দূরে যে আমি দাঁড়িয়ে থাকি সেই আমাতে কোনো অনুভূতি কাজ করে না। কোনো ভাবনাও আসে না। যেন একটা মৃত শরীর বা মৃত আমি। ঠাণ্ডা আর নিরুত্তাপ। যেন কোনো অদৃশ্য ইশারায় হাত নড়ে, পা নড়ে, হাতের কাজ সারি, হেঁটে চলে বেড়াই। খানিক দূরে দাঁড়ানো আমি কিছু বলতে চাই। কথা বলতে চাই। প্রাণপণ চেষ্টা করি কথা বলবার। ঠোঁট নড়ে না। শব্দ ফোটে না। কথা বলব কি করে, আমার তো মুখ নেই, শরীর নেই। আমার শরীর, সে ওই যে খানিক দূরে ভাষাহীন মৃত দুই চোখ নিয়ে রোবটের মতন কী সব যেন করে বেড়াচ্ছে।

নিজের মধ্যে ঢুকে যেতে চাই। যে শরীর ছেড়ে দূরে দাঁড়িয়ে আছি সেই শরীরের আশ্রয় চাই। কিন্তু এই অশরীরি আমারও নিজের উপর কোনো বশ থাকে না। কে জানে কার বা কিসের ইশারায় নাকি ইচ্ছেতে এমন দুই ভাগে ভাগ হয়ে নিরুপায় তাকিয়ে থাকি নিজেরই দিকে। আপেক্ষা, কতক্ষণে ফিরে পাব নিজেকে...

No comments:

Post a Comment