Sunday, September 02, 2012

একখান ঘর বানাইলাম আমি ইট কাঠ লোহা পাথর দিয়া...

কি দিয়েছি আর কি পেয়েছি সেই অঙ্কে বেলা বয়ে যায়। কে যেন বলেছিল, যা তোমার, তার চাইতে একরত্তি কমও পাবে না, বেশিও না। এরকম  ভাবতে পারা আর ভেবে/ মেনে নিয়ে সেই অনুযায়ী এগিয়ে যাওয়া/ যেতে পারা বেশ কঠিন। শক্ত।  

যা কিছু ভাল লাগার
ভালবাসার, সবই যে চাই! 
এক জানালা আকাশ নয়, 
অই গোটা মহাকাশটা চাই। 
সাতটা মহাসাগর
সাতখানি আশমান
আর গোটাগুটি এই পৃথিবী।

সবটুকু চাই।
সবটুকু।
এতুকুও কম নয়।
এক রত্তিও কম নয়।

চিকচিকে তারাদের মেলা
জোনাক জ্বলা রাত 
ভালবাসার শক্ত মুঠি
আর এক জোড়া হাত।।

কাঁচ ভেবে হীরে ফেলে যাওয়া ধুলায়, যখন জ্ঞান আসে,  ফেলে যা এলাম, সে শুধুমাত্র খণ্ড কাঁচ নয়, সে অমূল্য! ততক্ষণে বেজে উঠেছে ভোঁ। ছেড়ে গেছে শেষ ট্রেন...  ট্রেন চলে যায় ...

যা চলমান সে জীবন, থেমে যাওয়ার নাম মৃত্যু। তাই চলতে থাকা। চলতেই থাকা। একের পর এক স্টেশন। বাক্স-প্যাটরা আর মানুষের ওঠা-নামা। ব্যস্ততা। কোলাহলে চাপা পড়ে ফুঁপিয়ে ওঠা। ওড়নিতে চাপা দুই চোখ যেন জল থই থই কাজলা দীঘি... 

পথ হারানো পথিক পথ খুঁজে পায়, এগিয়ে যায় গন্তব্যের দিকে। পেছনে যা পড়ে রয়, তা পড়েই রয়, ফিরে তাকানোর অবকাশ সব সময় থাকে না বা অবকাশ থাকলেও ইচ্ছে বা সাহস থাকে না। কে জানে পিছন ফিরে তাকালে কি চোখে পড়বে! তাছাড়া গন্তব্যে পৌঁছুনোরও তো তাড়া থাকে, যদি মিস হয়ে যায় ট্রেন..

1 comment:

  1. সত্যিই- আমাদের তাড়া আমাদের সবটুকু মাধুর্যকে লীন করে দিয়েছে সময়ের নিষ্ঠুর পাটাতনে। তারপরও জীবনের তো একটা ক্যামিস্ট্রি আছে, তাই না? ও রকম করেই চলছে।

    আপনার লেখা ভালো লাগলো। বেশ সুন্দর।

    ReplyDelete